বুধবার, ২৯ জুন ২০২২, ০৬:৫২ পূর্বাহ্ন

কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগ

নতুন কমিটিতে আসামি অছাত্র ও বয়স উত্তীর্ণ

শফিউল্লাহ শফি, যুগান্তর: / ২০১ বার
আপডেট বৃহস্পতিবার, ৫ নভেম্বর, ২০২০, ৩:৩০ অপরাহ্ন

কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের সদ্যঘোষিত কমিটিতে সভাপতি হত্যাচেষ্টা মামলার আসামি ও সাধারণ সম্পাদক মোটরসাইকেল চোর সিন্ডিকেট নিয়ন্ত্রক বলে অভিযোগ উঠেছে।

শুধু তাই নয়, সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের ছাত্রত্ব নেই বলেও অভিযোগ করেছেন কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের সদ্যবিদায়ী সভাপতি ইশতিয়াক আহমদ জয়। তিনি তার ফেসবুক ওয়ালে একটি স্ট্যাটাসে এসব অভিযোগ তোলেন। ফেসবুক স্ট্যাটাসে তিনি উল্লেখ করেন, নতুন সভাপতি সাদ্দাম হোসাইন ও সাধারণ সম্পাদক মারুফ আদনানের ছাত্রত্ব নেই। তাছাড়া ছাত্রলীগ করার জন্য যে বয়স দরকার তাও তাদের পেরিয়ে গেছে।

ওই ফেসবুক স্ট্যাটাসে সদ্যবিদায়ী সভাপতি ইশতিয়াক আহমদ জয় কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের প্রতি বেশ কয়েকটি প্রশ্নও ছুড়ে দিয়েছেন। পাঠকদের জন্য সেই স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে ধরা হল, কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের সদ্যঘোষিত কমিটি নিয়ে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের কাছে আমাদের যুক্তিসঙ্গত কয়েকটি প্রশ্ন রয়েছে, এ প্রশ্নগুলোর সঠিক উত্তর জানার অধিকার নিশ্চয়ই আমাদের সবার আছে। ১. কেন্দ্র থেকে ঘোষিত কমিটিতে যে দু’জনকে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক করা হয়েছে, তারা কোন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে এখন পড়াশোনা করছে? তাদের কি ছাত্রত্ব আছে? আমাদের জানা মতে, এ দু’জনের কারোরই ছাত্রত্ব নেই। আর ছাত্রলীগের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী যাদের ছাত্রত্ব নেই তারা কেউই ছাত্রলীগের নেতা হতে পারবে না। নাকি কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ গঠনতন্ত্রের বাইরে গিয়ে স্বেচ্ছাচারী যে কোনো সিদ্ধান্ত নিতে পারে? ২. কেন্দ্র থেকে ঘোষিত কমিটিতে যে দু’জনকে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক করা হয়েছে, তাদের বয়স নেই। বয়স না থাকা কাউকে কি কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ গঠনতন্ত্রের বাইরে গিয়ে স্বৈরাচারী আচরণে নেতা বানাতে পারে? সাদ্দাম হোসেনের ভোটার আইডি নং-২২১৫৬৪০০০০৩৫, মারুফ আদনানের ভোটার আইডি নং-১৯৯০২২২২৪০৩০০০০০৮। ৩. কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ যাকে কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি করেছে তার বিরুদ্ধে ছাত্রলীগের এক কর্মীকে গুলি করে হত্যাচেষ্টা মামলা রয়েছে। এ রকম কোনো আসামিকে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা বানাতে পারে কি? মামলা নম্বর-৩৯/১৪১২০১৭। ৪. কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ যাকে সাধারণ সম্পাদক ঘোষণা করেছে তার বিরুদ্ধে মোটরসাইকেল চুরির সিন্ডিকেট নিয়ন্ত্রণের অভিযোগ রয়েছে। কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের কাছে জানতে চাই, এ রকম অভিযুক্ত কাউকে কি ছাত্রলীগের নেতা বানাতে পারে? ৫. কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের শীর্ষ নেতাদের বারবার অনুরোধ করা সত্ত্বেও তারা সম্মেলন করতে রাজি হয়নি। ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নেতাদের সম্মেলন করতে অনিচ্ছা ছিল কেন?

অবশেষে একটা কথাই বলতে চাই, ছাত্রলীগ একটা আবেগের নাম, এ আবেগ নিয়ে স্বেচ্ছাচারী আচরণ করা বন্ধ করতে হবে। সংগঠনের মঙ্গলের জন্য পকেট কমিটি দেয়া বন্ধ করতে হবে। তবে ইশতিয়াক আহমদ জয়ের দাবি নাকচ করে দিয়ে কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের নতুন সাধারণ সম্পাদক মারুফ আদনান বলেন, তিনি কক্সবাজার আইন কলেজের নিয়মিত একজন ছাত্র। তাছাড়া মোটরসাইকেল চুরির সিন্ডিকেট নিয়ন্ত্রকের যে অভিযোগ তার বিরুদ্ধে আনা হয়েছে তা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন।

নতুন দায়িত্বপ্রাপ্ত সভাপতি সাদ্দাম হোসাইন মঙ্গলবার দুপুরে মুঠোফোনে বলেন, তিনি চট্টগ্রাম প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটিতে আইন বিভাগের নিয়মিত ছাত্র। তাছাড়া ওনার বিরুদ্ধে যে মামলার অভিযোগ আনা হয়েছে সেটি ষড়যন্ত্রমূলক বলেও দাবি করেন। বয়সের বিষয়ে নতুন সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক বলেন, ২০১৯ সালের ২০ সেপ্টেম্বর যখন সম্মেলনের তারিখ ঘোষণা করা হয়েছিল, তখন পর্যন্ত যাদের বয়স ছিল তারা ছাত্রলীগের নেতৃত্বে আসতে পারবে বলে কেন্দ্র থেকে বলা হয়েছিল। সে সুবাদে তারা নেতৃত্বে এসেছেন।

নতুন সভাপতি সাদ্দাম হোসাইন বিদায়ী কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক এবং সাধারণ সম্পাদক মারুফ আদনান শিক্ষা ও পাঠচক্র বিষয়ক উপসম্পাদক ছিলেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো সংবাদ

এক ক্লিকে বিভাগের খবর
%d bloggers like this:
%d bloggers like this: