বুধবার, ২৯ জুন ২০২২, ০৬:১৪ পূর্বাহ্ন

উখিয়ার মরিচ্যায় সড়ক অবরোধ করে দুই চেয়ারম্যানের পাল্টাপাল্টি সমাবেশ

শফিক আজাদ:: / ৪৮৮ বার
আপডেট মঙ্গলবার, ২৭ অক্টোবর, ২০২০, ৩:৪৪ অপরাহ্ন

কক্সবাজার-টেকনাফ সড়কের উখিয়ার মরিচ্যা বাজারে প্রধান সড়ক অবরোধ করে ঘন্টাব্যাপী পাল্টাপাল্টি প্রতিবাদ সভা করেছে দুই চেয়ারম্যান। প্রথমে উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান কামরুন্নেছা বেবী ইউপি চেয়ারম্যান শাহ আলমের অপসারণের দাবীতে মানববন্ধন করে। একই স্থানে কিছুক্ষণের ব্যবধানে হলদিয়া ইউপি চেয়ারম্যান শাহ আলম মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানের কথার জবাবে পাল্টা সমাবেশ করেন। এতে সড়কের উভয় পাশে শত শত যানবাহন আটকা পড়ে আকস্মিক দূর্ভোগে পড়ে অসংখ্য যাত্রী, পথচারী, ব্যবসায়ীরা।

জানা গেছে, মঙ্গলবার (২৭ অক্টোবর) সকালে উখিয়া উপজেলা পরিষদের মাসিক আইন শৃংখলা রক্ষা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়ে। উক্ত সভায় উপস্থিত লোকজনের সম্মুখে হলদিয়া পালং ইউপি চেয়ারম্যান শাহ আলম কতৃক উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান কামরুন্নেছাকে পরণের কাপড় ধরে টানা হেচড়া করে বলে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান অভিযোগ করেন।

মানববন্ধন চলাকালে বক্তৃতায় মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, যে নারীকে সম্মান করতে জানে না সে অযোগ্য চেয়ারম্যান। আমি তার অপসারণ দাবী করছি।

অন্যদিকে মরিচ্যা বাজারের দক্ষিণ পাশে কক্সবাজার-টেকনাফ সড়কের মরিচ্যা বাজারে সড়ক অবরোধ করে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানের অশালীন আচরণে প্রতিবাদ সভা করেছেন হলদিয়া পালং ইউপি চেয়ারম্যান শাহ আলম।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সভায় ইউপি চেয়ারম্যান শাহ আলম বলেন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানকে কোনভাবে অশোভন আচরণ করা হয়নি। প্রায় ঘন্টা খানেক সড়ক অবরোধের পরে সভা সম্পন্ন করা হয়। এসময় বক্তব্য রাখেন উখিয়া উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম, জয়নাল উদ্দীন বাবুল প্রমুখ।

এতে দুর্ভোগের শিকার লোকজনদের নানা বিরুপ মন্তব্য করতে শুনা যায়। প্রায় সকলের মন্তব্য ছিল দুইজনই সরকার দলের। তারা এ জনদূর্ভোগ সৃষ্টি না করলেও পারতেন।

উখিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নিজাম উদ্দিন আহমেদ বলেন, উপজেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটির মিটিংয়ে এ ধরনের কোন কথাবার্তা হয়নি৷ কিন্তু মাসিক সমন্বয় সভায় মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান তার বক্তব্যে এলাকার বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কথা বলেন সেখানে গ্যাস সিলিন্ডার বিতরণ কথাটি উঠে আসে। তখন হলদিয়া পালংয়ের ইউপি চেয়ারম্যান শাহ আলম মিটিংয়ে ছিলেন না।

পরে জানতে পেরেছি মিটিং শেষে সম্মেলন কক্ষের বাইরে নাকি তাদের দু’জনের মধ্যে বাকবিতন্ডা হয়েছে। এ ঘটনার জের ধরে পাল্টাপাল্টি সমাবেশ করেছে তারা। আমি এনিয়ে উভয়পক্ষের সাথে কথা বলেছি, পরিস্থিতি এখন ভালো আছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো সংবাদ

এক ক্লিকে বিভাগের খবর
%d bloggers like this:
%d bloggers like this: