মঙ্গলবার, ২৮ জুন ২০২২, ০৫:৪৪ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
শিরোনাম :
উখিয়ার ক্যাম্প থেকে অস্ত্রসহ ৬ রোহিঙ্গা গ্রেফতার নুরুল হুদা গ্রেপ্তার বাইশারীতে বর্তমান ও সাবেক চেয়ারম্যান অনুসারীদের হামলার অভিযোগ উখিয়া অনলাইন প্রেসক্লাব নির্বাচনে বিভিন্ন পদে ১৮জনের মনোনয়ন সংগ্রহ উখিয়া অনলাইন প্রেসক্লাব’র নির্বাচন : জেলাজুড়ে জল্পনা-কল্পনা উখিয়ার লম্বাশিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অপরাধ জগৎ নিয়ন্ত্রণে যারা ক্যাম্পে কথিত আরসা সদস্যকে গুলি করে হত্যা বৈশ্বিক তহবিল ঘাটতির সাথে খাপ খাইয়ে নিতে সমন্বিত পরিকল্পনা অতীব জরুরী উখিয়ার পূর্বরত্না থেকে গভীর রাতে সংঘবদ্ধ ১৮ রোহিঙ্গা আটক প্রকাশিত সংবাদ প্রসঙ্গে ফুয়াদ আল-খতীব হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বক্তব্য

নাছিরকে সাথে নিয়ে রেজাউলের প্রচারণা

ডেস্ক নিউজ:: / ২১৬ বার
আপডেট শুক্রবার, ৮ জানুয়ারী, ২০২১, ৩:০৪ অপরাহ্ন

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী এম রেজাউল করিম চৌধুরী নগর আওয়ামী লীগের সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দিনকে সাথে নিয়ে প্রচারণা শুরু করেছেন।

শুক্রবার (৮ জানুয়ারি) নগরের বহদ্দারহাটে বহদ্দার বাড়ি জামে মসজিদে জুমার নামাজ শেষে পারিবারিক কবরস্থানে বাবা-মা ও পূর্বপুরুষদের কবর জেয়ারতের পর আনুষ্ঠানিকভাবে প্রচারণা শুরু করেন তিনি।

এদিকে প্রচারণা শুরুর আগে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে রেজাউল করিম বলেন ,‘আমাদের মধ্যে ঐক্য আছে। যারা অনৈক্যের কথা বলছেন তারা বিভ্রান্তি সৃষ্টি করছেন।’

তিনি বলেন, ‘আপনারাimageদেখতে পাচ্ছেন আমার ডানপাশে নগর আওয়ামীলীগের সভাপতি মাহতাব ও বামপাশে আ জ ম নাছির উদ্দিন আছে।’ নগর আওয়ামীলীগ সাংগঠনিক সম্পাদক নোমান আল মাহমুদ, সদস্য সামশুল আলম, মহানগর যুবলীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক ফরিদ মাহমুদের নাম উল্লেখ করে তিনি বলেন- ‘আমাদের মধ্যে ঐক্য না থাকলে আমার বাসায় প্রচারণায় সবাই মিলিত হতো না। আমরা ঐক্যবদ্ধ।’

ওই সময়ে ঐক্যর একই সুর তুলে আ জ ম নাছির উদ্দিন বলেন- ‘নগর আওয়ামী লীগ এক এবং অভিন্ন উদ্দেশ্যে নিয়ে কাজ করছে। আমরা আমাদের সাংগঠনিক কাজ গুলো সম্পন্ন করেছি।’

নির্বাচনের শেষ পর্যন্ত এই ঐক্য থাকবে কি’না?- সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের উত্তরে আ জ ম নাছির উদ্দিন বলেন-‘শুধু মাত্র নির্বাচন নয়। যতদিন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগ থাকবে ততদিন আমাদের এই ঐক্য থাকবে।’

প্রথমদিনে ১ নম্বর দক্ষিণ পাহাড়তলী ওয়ার্ড, ২ নম্বর জালালাবাদ ওয়ার্ড ও ৩ নম্বর পাঁচলাইশ ওয়ার্ডে গণসংযোগ করেন আ’লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী রেজাউল করিম।

প্রচারণায় নেমে রেজাউল করিম চৌধুরী বলেন- ‘করোনাকালে মানুষ যখন অসহায় ছিলো, হতাশায় ছিল তখন আমি তাদের পাশে দাঁড়িয়েছি। আমি মনে করি যখন মানুষ বিপদগ্রস্থ হয় তখন যাকে পাশে পাই তাকে হৃদয়ে স্থান দেয়। আমাকেও হৃদয়ে স্থান দিয়েছে। তাই আজকে আমরা নির্বাচনী প্রচারণা নেমে পড়তেই মানুষ ভালোভাবেই সাড়া দিচ্ছে। আল্লাহর রহমতে মানুষ আমাকে ভালোভাবেই গ্রহণ করেছে। মানুষের মাঝে বেশ উদ্দীপনা –উৎসাহ দেখা দিচ্ছে।’

নির্বাচনের মাঠে সুষ্ঠু পরিবেশ শেষ পর্যন্ত থাকবে কি’না এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন- ‘অবশ্যই ভাই। আমরা তো কাউকে বাধা দিচ্ছি না। এ পর্যন্ত কাউকে বাধা দিইও নাই। দেবোও না। ইভিএমে ভোট পড়ে। মানুষ তার গণতান্ত্রিক অধিকার প্রয়োগ করবে।’

বিএনপিকে ইঙ্গিত করে তিনি বলেন-‘অনেকেই অনেক কথা বলছে। আমরা শুনছি। কিন্তু বিষয়টা হচ্ছে, একটা রাজনৈতিক দল আছে। যারা সরকারের ভালো দিকগুলো দেখে না। পদ্মা সেতু হয়েছে, এখানে টানেল (কর্ণফুলী টানেল) হচ্ছে সেগুলোর কথা কিছু বলছে না। ওরা শুধু নালিশ, অভিযোগ আর বায়বীয় কতগুলো কথা বলে মানুষকে বিভ্রান্ত করছে। এরা এখন ডুবন্ত তরী।’

এদিকে তার প্রচারণার বহরটি হাটহাজারী দিকে রওনা দেওয়ার পথে হাটহাজারী রোড, ফতেয়াবাদ, নন্দীর হাট সহ বিভিন্ন এলাকায় থেকে গাড়ির বহর যুক্ত হয় তার প্রচারণায়। বিশাল এই বহরটি বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে ১ নম্বর দক্ষিণ পাহাড়তলীর নন্দীর হাট এলাকায় পৌঁছালে সেখানে স্লোগান দিতে শুরু করে ‘নাছির ভাইয়ের পক্ষ থেকে লাল গোলাপ শুভেচ্ছা।’ ‘নাছির ভাইয়ের ভয় নাই রাজপথ ছাড়ি নাই।’

এসময় চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক এড: শেখ ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী বেশ কয়েক দফা চেষ্টা করে তাদের স্লোগান থামাতে ব্যর্থ হয়। ওই সময়ে তিনি বলতে থাকেন-‘সবাই চুপ করেন। বসেন.. বসেন…। তীব্র স্লোগানের মুখে এক সময়ে তিনি বলেন- ‘সংগ্রামী বন্ধুগণ মহানগর আওয়ামী লীগের সম্মানীত সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক মেয়র, জননন্দিত নেতা আ জ ম নাছির উদ্দিন এখানে উপস্থিত আছেন।’ তিনি বলেন ‘আমাদের নৌকা প্রার্থী.., জননেত্রী শেখ হাসিনার প্রতিনিধি জনাব রেজাউল করিম চৌধুরী আপনাদের স্বাগত জানাচ্ছেন। অভিনন্দন জানাচ্ছেন।’

পরে তীব্র স্লোগানের থামাতে না পেরে আ জ ম নাছির উদ্দিন ধমকের সুরে বলেন-‘তোমরা পাগলামি করো কেন? তোমরা কথা না শুনলে এখানে এসে লাভ কি? সবাই কথা শুনো-..’

সংক্ষিপ্ত বক্তেব্যে তিনি বলেন- ‘আমরা আওয়মী লীগ, যুবলীগ, সেচ্ছাসেবক লীগসহ বিভিন্ন স্তরের নেতা কর্মীরা এখানে উপস্থিত হয়েছি। আমরা অনুরোধ করবো এখানে কোন রকম বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করবেন না। আবেগ প্রবণ হয়ে আপনারা কোন স্লোগান দেবেন না। আমি অনুরোধ করবো – আগামী ২৭ জানুয়ারির নির্বাচনটা আমাদের জন্য অতন্ত্য গুরুত্বপূর্ণ। এই নির্বাচনে আমাদের প্রার্থীর বিজয়ের কোন বিকল্প নেই।’ রেজাউল করিম চৌধুরীর জন্য ভোট চেয়ে তিনি বলেন- ‘আপনার নিজের ভোট। আপনার পরিবারের প্রত্যেকটি সদস্যর ভোট নিশ্চিত করতে হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো সংবাদ

এক ক্লিকে বিভাগের খবর
%d bloggers like this:
%d bloggers like this: