বুধবার, ২৫ নভেম্বর ২০২০, ০৫:৫৫ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
শিরোনাম :
কক্সবাজার পৌর বিএনপির সভাপতি রফিকুল হুদা , সহ-সভাপতি কাইয়ুম , সম্পাদক কাসেম সেবা নিতে হয়রানির শিকার হলে সরাসরি আমাকে জানাবেন : এসপি হাসানুজ্জামান উখিয়াতে ঝুকিপূর্ণ বাজার ব্যবস্থাপনাঃদেখা নেই অগ্নিনিবার্পক যন্ত্র মহাখালীর সাততলা বস্তিতে আগুন, নিয়ন্ত্রণে ১২ ইউনিট নেতাকর্মীর ভালবাসায় সিক্ত কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি-সম্পাদক কক্সবাজার জাহাঙ্গীর মেচ ও শাহ মজিদিয়া রেস্টুরেন্টকে ৪০ হাজার টাকা জরিমানা কক্সবাজারে জেলা প্রশাসকের উদ্যোগে এবার হচ্ছে ‘শিশু হাসপাতাল পালংখালীর আওয়ামী লীগ নেতা শেখ হাবিবুর রহমানের জানাজা সম্পন্ন দুর্নীতির মামলা থেকে খালাস ইশরাক হোসেন কক্সবাজার উত্তর বনবিভাগের ২ একর সরকারি বনভূমি উদ্ধার

এবার প্রবারণা পূর্ণিমায় ফানুস উড়াবে না উখিয়ার বৌদ্ধরা

পলাশ বড়ুয়া: / ৭৩ বার
আপডেট বুধবার, ২৫ নভেম্বর ২০২০, ০৫:৫৫ পূর্বাহ্ন

করোনার প্রাদুর্ভাবের কারণে এবার প্রবারণা পূর্ণিমা উপলক্ষ্যে ফানুস উড়াবে না উখিয়ার বৌদ্ধরা। স্বাস্থ্যবিধি মেনে হাজার প্রদীপ প্রজ্জ্বলন করে দুপুরের মধ্যে ধর্মীয় কার্যাদি সম্পন্নের সিদ্ধান্ত হয়।

২২ সেপ্টেম্বর(মঙ্গলবার) বিকেল ৪টায় উখিয়া উপজেলার সম্মেলন কক্ষে ইউএনও মো: নিকারুজ্জামান চৌধুরী’র সভাপতিত্বে আসন্ন প্রবারণা পূর্ণিমা উপলক্ষ্যে ৪৬টি বৌদ্ধ বিহারে সরকারি অনুদানের ২২.৫মে.টন চাউল বিতরণকালে উখিয়া ভিক্ষু সমিতির সাধারণ সম্পাদক জ্যোতিপ্রিয় থের এ কথা বলেন।

সভাপতির বক্তব্যে ইউএনও নিকারুজ্জামান চৌধুরী বলেছেন, বর্তমান সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সকল ধর্মের মানুষের প্রতি আন্তরিক। তাই পবিত্র প্রবারণা পূর্ণিমা উপলক্ষ্যে সরকারের এই অনুদান। তিনি বৌদ্ধ বিহার সমূহের নেতৃবৃন্দকে স্বাস্ব্যবিধি মেনে প্রবারণা উপযাপন করার কথা বলেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে উখিয়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও অধ্যক্ষ হামিদুল হক চৌধুরী বলেন, বর্তমান সরকার অসাম্প্রদায়িক চেতনা নিয়ে সকল ধর্মের মানুষের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছে। তাছাড়া বৌদ্ধরা হচ্ছে অন্য দলের চেয়ে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের রিজার্ভ ভোট ব্যাংক। সেটার বিনিময়ে হলেও সংখ্যায় সীমিত মানুষ গুলোর প্রতি দৃষ্টি না রাখলে অকৃতজ্ঞ হবে আ’লীগ সরকার।

প্রধান আলোচকের বক্তব্যে বৌদ্ধ ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের ভাইস চেয়ারম্যান সুপ্ত ভূষণ বড়ুয়া বলেছেন, মুসলিম সম্প্রদায়ের ন্যায় এ বছর থেকে সরকারি ভাবে হিন্দু-বৌদ্ধরাও তীর্থ ভ্রমণে যেতে পারবেন। এছাড়াও নেপাল সরকারের দানকৃত জায়গার উপর বাংলাদেশ সরকারের অর্থায়নে নেপালে নির্মিত হচ্ছে বৌদ্ধ বিহার। ইতোমধ্যে বাংলাদেশ সরকার ১শ কোটি টাকা অনুমোদন দিয়েছেন। যেখানে বাংলাদেশী ১শ জন তীর্থযাত্রীর আবাসন ব্যবস্থা থাকবে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, বৌদ্ধ ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের ট্রাস্টি এড. দীপঙ্কর বড়ুয়া পিন্টু। উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মর্জিনা আক্তার, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো: আব্দুল্লাহ আল মামুন।

অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, উখিয়া ভিক্ষু সমিতির সভাপতি শ্রীমৎ এস. ধর্মপাল মহাথের, বাংলাদেশ বৌদ্ধ সমিতি-যুব কক্সবাজার জেলা শাখার সভাপতি এড. অনিল কান্তি বড়ুয়া, উখিয়া উপজেলা সার্বজনীন বৌদ্ধ বিহার উন্নয়ন ও সমাজ সুরক্ষা কমিটির সভাপতি কলেজ শিক্ষক প্লাবন বড়ুয়া, উখিয়া অনলাইন প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক পলাশ বড়ুয়া, অব: শিক্ষক সুবদন বড়ুয়া প্রমুখ।

সভা শেষে উখিয়ার বিদায়ী ইউএনও মো: নিকারুজ্জামান চৌধুরীকে উখিয়া উপজেলা সার্বজনীন বৌদ্ধ বিহার উন্নয়ন ও সমাজ সুরক্ষা কমিটি এবং বৌদ্ধ ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের পক্ষ থেকে সম্মাননা স্মারক প্রদান করা হয়।

হিন্দু-বৌদ্ধ-খৃষ্টান ঐক্য পরিষদ উখিয়া শাখার সভাপতি শিক্ষক মেধু কুমার বড়ুয়ার সঞ্চালনায় চাউল বিতরণ অনুষ্ঠানে উখিয়ার বৌদ্ধ বিহার সমূহের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ সুধীজন উপস্থিত ছিলেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ
এক ক্লিকে বিভাগের খবর
%d bloggers like this:
%d bloggers like this: