শনিবার, ১৬ জানুয়ারী ২০২১, ০৮:১৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
শিরোনাম :
পৌরসভা নির্বাচনে ধানের শীষের ৫২ প্রার্থী চূড়ান্ত  সীমান্তে বস্তা থেকে ৩০ হাজার ইয়াবা উদ্ধার সাংবাদিক মিজানের বড় ভাই হারুন উর রশিদ আর নেই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি বাড়লো ৩০ জানুয়ারি পর্যন্ত  গর্জনিয়ায় বাড়ি থেকে ডেকে শিশু ধর্ষণ মামলার বাদিকে হত্যা কক্সবাজারে রামু র‌্যাবের অভিযানে ইয়াবাসহ এক রােহিঙ্গা মাদক কারবারী গ্রেফতার রোহিঙ্গা প্রশ্নে ত্রিদেশীয় বৈঠক ভর্তি নিয়ে দুশ্চিতায় শিক্ষার্থীরা: উখিয়া সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে দুই শিফট চালু’র দাবী অভিভাবকদের উখিয়ায় ‘অধিকার বাস্তবায়ন কমিটি পালংখালী’ নামে এরা কারা উখিয়া সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ে বই বিতরণ উদ্বোধন করেন ইউএনও নিজাম উদ্দিন আহমেদ

রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে না নিলে অশান্তির আশঙ্কা আছে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ডেস্ক নিউজ:: / ১২৩ বার
আপডেট রবিবার, ৩ জানুয়ারী, ২০২১, ১১:৫২ পূর্বাহ্ন

রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে না নিলে অশান্তির আশঙ্কা আছে বলে মন্তব্য করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন।

নানা চেষ্টার পর বাংলাদেশে অনুপ্রবেশের সাড়ে তিন বছর পরও রোহিঙ্গাদের একজনকেও মিয়ানমারের রাখাইনে ফেরত পাঠানো যায়নি। তারপরও বাংলাদেশের এ বছর রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরু করতে চান।

এ বিষয়ে রোববার নিজ দফতরে পররাষ্ট্রমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন আমাদের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ। আমরা এ বছর প্রত্যাবাসন শুরু করতে চাই।

নতুন বছরের শুভেচ্ছা জানিয়ে ১ জানুয়ারি মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সেলরের দপ্তরের মন্ত্রী টিন্ট সোয়েকে চিঠি লিখেছি। চিঠিতে তাঁকে লিখেছি, এ বছর প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া শুরু হোক।

মিয়ানমারকে রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নেওয়ার অঙ্গীকারের বিষয়টি মনে করিয়ে দিয়ে মিয়ানমারের মন্ত্রী টিন্ট সোয়েকে বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুল মোমেন বলেন, আপনারা রোহিঙ্গাদের নিরাপত্তা দিয়ে ফিরিয়ে নেবেন বলেছেন। প্রত্যাবাসনের পরিবেশ তৈরির কথা দিয়েছেন। কিন্তু কোনো অগ্রগতি হয়নি। এ জন্য দরকার রাজনৈতিক সদিচ্ছা।কাজেই নববর্ষে আমাদের প্রত্যাশা, আপনারা কথা রাখেন। অতীতে কথা রেখেছেন। নিজেদের লোকগুলো নিয়ে যান। কাজে লাগবে। আর তাদের ফিরিয়ে না নিলে অশান্তির আশঙ্কা আছে।

এক প্রশ্নের উত্তরে পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, চীনের পাশাপাশি জাপানের কাছ থেকেও বাংলাদেশ প্রত্যাবাসনের বিষয়ে সহযোগিতা চায়।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, জাপানের অনেক বড় আকারের বিনিয়োগ আছে মিয়ানমারে। তাই তাদের আমরা মিয়ানমারের সঙ্গে আলোচনা করতে অনুরোধ জানিয়েছি। জাপান আমাদের মিয়ানমারের সঙ্গে আলোচনার বিষয়ে আশ্বস্ত করেছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ
এক ক্লিকে বিভাগের খবর
%d bloggers like this:
%d bloggers like this: