সোমবার, ১৭ মে ২০২১, ০৪:২২ পূর্বাহ্ন

বালু উত্তোলন: লামা ফাঁসিয়াখালী বগাইছড়ি ব্রিজটি ধসে পড়ার আশংকা

নিজস্ব প্রতিবেদক,লামা: / ৯৭ বার
আপডেট রবিবার, ২৫ এপ্রিল, ২০২১, ৬:৪৫ পূর্বাহ্ন

পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের অর্থায়নে ২০১০ সালে প্রায় ২ কোটি টাকা ব্যয়ে এই ৩৫ মিটার গার্ডার ব্রিজটি নির্মিত হয়। পরে বিভিন্ন সময় উন্নয়ন বোর্ড ও এলজিইডি লামা ব্রিজটি সংষ্কার করে।

লামা উপজেলার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের বগাইছড়ি ব্রিজ। পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের অর্থায়নে ২০১০ সালে প্রায় ২ কোটি টাকা ব্যয়ে এই ৩৫ মিটার গার্ডার ব্রিজটি নির্মিত হয়। পরে বিভিন্ন সময় উন্নয়ন বোর্ড ও এলজিইডি লামা ব্রিজটি সংষ্কার করে।

ব্রিজের পাশের বাসিন্দারা জানান, সে সময় ব্রিজের বেইজ মাটির লেবেলের নিচে ছিল। অথচ ১০ বছরের ব্যবধানে ব্রিজের নিচের মাটির লেবেল কমপক্ষে ১৫ ফুট নিচে নেমে গেছে। এতে করে ব্রিজটির বেইজ ও পাইলিং পিলার গুলো মাটির উপরে ভেসে উঠে এসেছে।

মাটির লেবেল নেমে গিয়ে ব্রিজটি ধসে পড়ার এই পরিস্থিতির জন্য স্থানীয়রা বালু উত্তোলনকারীদের দায় করছেন। ব্রিজটির উপরে ও নিচ থেকে ৩০টির অধিক সেলু মেশিন দিয়ে অনরবত বালু তোলা হচ্ছে। কোন ভাবে এই বালু তোলা বন্ধ করা যাচ্ছে না।

এই বালু তোলার সাথে জড়িত মালুম্যা এলাকার এরশাদুর রহমান (যুবলীগ নেতা), বগাইছড়ির আলাউদ্দিন, দক্ষিণ মালুম্যার মোঃ রেজাউল, ইমাম হোসেন, মোঃ সিরাজ, আলতাজ মিয়া, উত্তর মালুম্যার মনির হোসেন সহ প্রমূখ।

ইতিমধ্যে গত ২০১৯ সালে ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের বড় ছনখোলা এলাকার একটি ব্রিজ ধসে পড়ে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। দুই বছরের অধিক সময় ধরে ব্রিজটি পড়ে গেলেও নতুন ব্রিজ নির্মাণে কোন পদক্ষেপ নেয়া হয়নি। সেই ব্রিজটিও বালু তোলার কারণে ধসে পড়েছিল।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ

এক ক্লিকে বিভাগের খবর
%d bloggers like this:
%d bloggers like this: