শুক্রবার, ২২ জানুয়ারী ২০২১, ০১:১১ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
শিরোনাম :
নাইক্ষ্যংছড়ি সীমান্তে বন্দুকযুদ্ধে ইয়াবা কারবারি নিহত ফেব্রুয়ারির দ্বিতীয় সপ্তাহে খুলতে পারে শিক্ষাঙ্গন দুদকের মামলায় কারাগারে টেকনাফের সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান জাফর সেন্টমার্টিন প্রবাল দ্বীপ ভ্রমণে পুলিশের মহাপরিদর্শক বেনজীর আহমেদ ভাসানচরে ঈদের আনন্দ, মেজবানের আয়োজন হাটহাজারীতে রেলওয়ের সম্পত্তি উদ্ধার করলেন উপজেলা প্রশাসন বান্দরবানে প্রথম দফায় ৩৩৯টি ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে ঘর দেয়া হচ্ছে ইসলামাবাদে সড়ক দুর্ঘটনায় একজন নিহত আহত-১ মুজিববর্ষে জমিসহ ঘর পাচ্ছেন ৮৬৫ গৃহহীন, শনিবার হস্তান্তর করবেন প্রধানমন্ত্রী মহেশখালীর ভূমি অফিসের তহসিলদার জয়নাল দুদকের হাতে আটক

প্রাথমিক শিক্ষকদের নিয়মিত বিদ্যালয়ে উপস্থিত থাকার নির্দেশ

ডেস্ক নিউজ:: / ৬৩ বার
আপডেট বুধবার, ৬ জানুয়ারী, ২০২১, ৩:৫৩ পূর্বাহ্ন

করোনার ছুটি চলাকালে দেশের সব প্রাথমিক শিক্ষকের বিদ্যালয়ে উপস্থিতি নিশ্চিত করতে নির্দেশ দিয়েছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর। রোস্টার অনুযায়ী পর্যায়ক্রমে শিক্ষকরা বিদ্যালয়ে উপস্থিত থাকবেন। তবে সন্তানসম্ভবা শিক্ষিকা ও অসুস্থ শিক্ষক-কর্মচারীদের বিদ্যালয়ে আসতে হবে না। প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক আলমগীর মুহম্মদ মনসুরুল আলম বাংলা ট্রিবিউনকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, এ সংক্রান্ত আদেশ জারি করা হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, বই বিতরণ, উপবৃত্তি, ভর্তি কার্যক্রম পরিচালনা এবং শিশু জরিপ কাজে শিক্ষকদের উপস্থিত থাকতে হবে। শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষা এবং মোবাইলে পাঠদানে সহযোগিতার জন্য শিক্ষকদের উপস্থিত থাকা নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। প্রধান শিক্ষক রোস্টার করে শিক্ষকদের বিদ্যালয়ে উপস্থিতি নিশ্চিত করবেন। তবে শিক্ষার্থীরা স্বাস্থ্যবিধি মেনে বাসায় থাকবে।

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর এ সংক্রান্ত আদেশ দিলেও বিদ্যালয় পর্যায়ে এখনও তা পৌঁছেনি। সে কারণে বিদ্যালয়ে উপস্থিত থাকতে হবে কিনা তা বেশিরভাগ শিক্ষক জানেন না। তবে রাজধানীর মোহাম্মদপুর থানা এলাকায় শিক্ষকদের বিদ্যালয়ে উপস্থিত থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

জানতে চাইলে মোহাম্মদপুর থানা শিক্ষা অফিসার জেসমিন আক্তার বানু বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘উপবৃত্তি কার্যক্রম, ভর্তি কার্যক্রম পরিচালনা, শিশু জরিপ কাজ পরিচালনা জন্য এবং অবকাঠামো রক্ষণাবেক্ষণসহ বিভিন্ন প্রয়োজনীয় কাজে শিক্ষকদের বিদ্যালয়ে উপস্থিত থাকার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। আদেশ আসার আগেই আমি প্রধান শিক্ষকদের বলে দিয়েছি রোস্টার করে শিক্ষক উপস্থিত থাকার কথা।

এদিকে গত ১ জানুয়ারি বিদ্যালয়ে সব শিক্ষককে উপস্থিত থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল বই বিতরণ কাজের জন্য। এছাড়া প্রধান শিক্ষকদের দেখভাল করার জন্য বিদ্যালয়ে উপস্থিত থাকার নির্দেশনা আগে থেকেই দেওয়া হয়েছিল। প্রধান শিক্ষক অথবা কোনও একজন শিক্ষককে নিয়মিত বিদ্যালয়ে উপস্থিত থাকার কথা বলা হয়েছিল আগের নির্দেশনায়।

গত বছর ৮ মার্চ দেশে করোনা রোগী শনাক্ত হলে ১৭ মার্চ থেকে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করে সরকার। এই বন্ধ দফায় দফায় বাড়িয়ে আগামী ১৬ জানুয়ারি পর্যন্ত করা হয়েছে। শীতে করোনার দ্বিতীয় ওয়েভ শুরুর পর বিদ্যালয় কবে খুলবে তার সুনির্দিষ্ট কোনও নির্দেশনা দেওয়া হয়নি। তবে প্রধানমন্ত্রী শেষ হাসিনা বই উৎসব উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বলেছেন, করোনা পরিস্থিতি অনুকূলে না এলে বিদ্যালয় খোলা হবে না। আর সম্প্রতি শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, ফেব্রুয়ারিতে দশম শ্রেণি এবং দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থীদের বিদ্যালয়ে আনার পরিকল্পনা রয়েছে। সব মিলিয়ে জানুয়ারি মাসে বিদ্যালয় খোলার সম্ভাবনা নেই। তবে শিক্ষকদের বিদ্যালয়ে রোস্টার অনুযায়ী উপস্থিত থাকবে হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ
এক ক্লিকে বিভাগের খবর
%d bloggers like this:
%d bloggers like this: