শুক্রবার, ২২ জানুয়ারী ২০২১, ০২:১৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
শিরোনাম :
দুদকের মামলায় কারাগারে টেকনাফের সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান জাফর সেন্টমার্টিন প্রবাল দ্বীপ ভ্রমণে পুলিশের মহাপরিদর্শক বেনজীর আহমেদ ভাসানচরে ঈদের আনন্দ, মেজবানের আয়োজন হাটহাজারীতে রেলওয়ের সম্পত্তি উদ্ধার করলেন উপজেলা প্রশাসন বান্দরবানে প্রথম দফায় ৩৩৯টি ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে ঘর দেয়া হচ্ছে ইসলামাবাদে সড়ক দুর্ঘটনায় একজন নিহত আহত-১ মুজিববর্ষে জমিসহ ঘর পাচ্ছেন ৮৬৫ গৃহহীন, শনিবার হস্তান্তর করবেন প্রধানমন্ত্রী মহেশখালীর ভূমি অফিসের তহসিলদার জয়নাল দুদকের হাতে আটক উখিয়ায় শিক্ষকের বসতবাড়ীতে চুরি, নিয়ে গেছে স্বর্ণালংকার ও নগদ টাকা বান্দরবানে চাঁদের গাড়ি খাদে পড়ে নিহত ৩, আহত ৫

নদীভাঙন প্রতিরোধের দাবি: উপজেলা চেয়ারম্যানসহ ১২৩ জনপ্রতিনিধির পদত্যাগের ঘোষণা

রামগতি (লক্ষ্মীপুর) প্রতিনিধি:: / ৮২ বার
আপডেট শনিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ২:৪৫ অপরাহ্ন

লক্ষ্মীপুরের কমলনগরের মেঘনা নদীর ভাঙন প্রতিরোধে প্রকল্প দ্রুত বাস্তবায়ন না হলে উপজেলা চেয়ারম্যানসহ ১২৩ জন জনপ্রতিনিধি পদত্যাগের ঘোষণা দিয়েছেন।

৯ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান, ৮১ জন ইউপি সদস্য, ২৭ জন নারী সদস্য, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ও ৩ জন জেলা পরিষদের সদস্য মেঘনার ভাঙন থেকে কমলনগর রক্ষায় এ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

শুক্রবার উপজেলার লুধুয়া ফলকন এলাকায় পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক ভাঙন পরিস্থিতি পরিদর্শনে আসলে উপজেলা চেয়ারম্যান মেজবাহ উদ্দিন আহমেদ বাপ্পি এ ঘোষণা দেন।

প্রতিমন্ত্রীর উপস্থিতিতে উপজেলা চেয়ারম্যান মেজবাহ উদ্দিন আহমেদ বাপ্পি বলেন, আমরা যারা জনপ্রতিনিধি হিসাবে সরকারের কার্যক্রম বাস্তবায়ন করার জন্য মাঠে কাজ করছি তারা নদী ভাঙন রোধের বিষয়ে জনগণকে কোনো জবাব দিতে পারিনা। প্রতিশ্রুতি দিয়েছি; আশার বানী শুনিয়েছি কিন্তু তা বাস্তবায়ন হয়নি।

আমাদের অন্য কোনো উন্নয়নের দাবি নাই, একমাত্র দাবি মেঘনার ভাঙন থেকে রামগতি ও কমলনগর রক্ষায় প্রয়োজনীয় উদ্যোগ ও বাস্তবায়ন। আগামী মাসের সভায় যাতে নদী তীর রক্ষা বাঁধের প্রকল্পটি অনুমোদন হয় সে দাবি জানাই।

না হয় উপজেলার ৯ ইউনিয়নের ৯ জন চেয়ারম্যান, ৮১ জন ইউপি সদস্য, ২৭ জন নারী সদস্য, ভাইস চেয়ারম্যান, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ও ৩ জন জেলা পরিষদের সদস্যসহ আমরা ১২৩ জনপ্রতিনিধি দায়িত্ব থেকে পদত্যাগ করব।

এসময় উপস্থিত ছিলেন লক্ষ্মীপুর-৪ (রামগতি ও কমলনগর) আসনের সংসদ সদস্য বিকল্প ধারার মহাসচিব মেজর (অব.) আবদুল মান্নান, পানি উন্নয়ন বোর্ডের মহাপরিচালক মাহফুজুর রহমান, লক্ষ্মীপুরের জেলা প্রশাসক অঞ্জন চন্দ্র পাল, পুলিশ সুপার ডা. এএইচএম কামরুজ্জামান, কমলনগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি একেএম নুরুল আমিন মাস্টার ও বিকল্পধারার উপজেলার সভাপতি মোহাম্মদ উল্লাহ মিয়া।

প্রসঙ্গত, দীর্ঘ তিন যুগেরও বেশি সময় ধরে লক্ষ্মীপুরের রামগতি ও কমলনগর মেঘনা নদীর অব্যাহত ভাঙনে বিলীন হয়ে যাচ্ছে। ফসলি জমি, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, মসজিদ-মন্দির, আশ্রয়কেন্দ্র, হাট-বাজার, রাস্তা-ঘাট, ঘরবাড়ি ও সরকারি-বেসরকারি বহু স্থাপনা মেঘনা নদী গিলে খাচ্ছে।

হাজার-হাজার পরিবার ভাঙনের শিকার হয়ে সব হারিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছে। দিন দিনই ছোট হয়ে আসছে এলাকা; এমন পরিস্থিতিতে নদীর তীর রক্ষা বাঁধ জরুরী। না হয় মানচিত্র থেকে হারিয়ে যাবে রামগতি ও কমলনগর।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ
এক ক্লিকে বিভাগের খবর
%d bloggers like this:
%d bloggers like this: