বৃহস্পতিবার, ২১ জানুয়ারী ২০২১, ০২:২২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
শিরোনাম :
ঘুমধুমের রাজু বড়ুয়া ইয়াবাসহ আটক চকরিয়ায় মুজিব শতবর্ষে ১৮০ পরিবার পাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রীর উপহার নতুন ঘর টেকনাফ র‌্যাবের অভিযানে অস্ত্রসহ এক ব্যবসায়ী গ্রেফতার হােয়াইক্যং র‌্যাবের অভিযানে ইয়াবাসহ এক মাদক কারবারী গ্রেফতার মধ্যরত্না গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলায় চৌধুরী পাড়া চ্যাম্পিয়ন উখিয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত এহসানের জানাজা সম্পন্ন মাদক কারবারিদের আইনের আওতায় আনা হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অস্ত্র ও মাদকের মামলায় সাংবাদিক ফরিদের স্থায়ী জামিন কক্সবাজার জেলার নবম থানা ঈদগাঁও এর উদ্বোধন কুতুপালং এমএসএফ হাসপাতালে শুয়ে আছে গুরুতর আহত অজ্ঞাত শিশু, কেউ সন্ধান দিন

টেকনাফ বিজিবি’র অভিযানে ৩ কোটি টাকার ইয়াবা উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিবেদন,টেকনাফ / ১১৩ বার
আপডেট রবিবার, ১৩ ডিসেম্বর, ২০২০, ৩:৫৭ পূর্বাহ্ন

টেকনাফে বিজিবি’র অভিযানে তিন কোটি টাকার ইয়াবা উদ্ধার করেছে। এসময় কোন পাচারকারীকে আটক করা সম্ভব হয়নি।

টেকনাফ ব্যাটালিয়ন ২বিজিবি অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল মোহাম্মদ ফয়সল হাসান খান বলেন, শনিবার ভোররাতে টেকনাফ ব্যাটালিয়ন (২ বিজিবি) আওতাধীন খারাংখালী বিওপি’র দায়িত্বপূর্ণ এলাকার নতুন পাড়া মাঠের পূর্ব পাশে শামছু উদ্দীন এর মাছের ঘেড় দিয়ে মিয়ানমার হতে ইয়াবার একটি বড় চালান বাংলাদেশে পাচার হতে পারে। উক্ত সংবাদের খারাংখালী বিওপি’র একটি বিশেষ টহলদল দ্রুত ঐএলাকায় অবস্থান করেন।পরে টহলদল ৬-৭ জন দুষ্কৃতিকারী ব্যক্তিকে খারাংখালী নতুনপাড়া মাঠের পূর্ব পাশে শামছু উদ্দীনের মাছের ঘেড়ের ৫০ গজ এবং ৪নং স্লুইচ গেইটের পশ্চিম দিক দিয়ে আসতে দেখে। টহলদল তাৎক্ষণিক তাদেরকে আটক করার জন্য চ্যালেঞ্জ করে। উক্ত ব্যক্তিগণ দূর হতে বিজিবি টহলদলের উপস্থিতি লক্ষ্য করা মাত্রই ঘন কুয়াশা ও অন্ধকারের সুযোগ নিয়ে ঘেড়ের পার্শ্ববর্তী আঁড় ব্যবহার করে দ্রুত পালিয়ে যায়। টহলদল বর্ণিত স্থানে পৌঁছে তল্লাশী অভিযান পরিচালনা করে ইয়াবা পাচারকারীদের ফেলে যাওয়া ৪টি ছোট ছোট প্লাষ্টিকের বস্তা উদ্ধার করে। উদ্ধারকৃত বস্তাগুলোর ভিতর হতে ১ লক্ষ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট জব্দ করা হয়। যার আনুমানিক মূল্য ৩ কোটি টাকা বলে জানা যায়।

তিনি বলেন, উদ্ধারকৃত মালিকবিহীন ইয়াবাগুলো বর্তমানে ব্যাটালিয়ন সদরের ষ্টোরে জমা রাখা হবে এবং প্রয়োজনীয় আইনী কার্যক্রম গ্রহণ পরবর্তীতে তা উর্দ্ধতন কর্মকর্তা, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের প্রতিনিধি, স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও মিডিয়া কর্মীদের উপস্থিতিতে ধ্বংস করা হবে।

এদিকে, টেকনাফ ২বিজিবি এর উপ- অধিনায়ক মেজর মোঃ রুবায়াৎ কবীর এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, সীমান্ত এলাকায় মাদক নির্মূলের জন্য বিজিবি সদস্যগণ রাত দিন নিরলসভাবে পরিশ্রম করে যাচ্ছে। পরিসংখ্যান পর্যালোচনা করলে দেখা যায় যে, পূর্বের তুলনায় মাদক পাচার হ্রাস পায় নি। শুধুমাত্র সংশ্লিষ্ট সকল বাহিনীর মাদকবিরোধী অভিযানে ইয়াবার মত ভয়ানক ও অর্থের নির্মল উৎসের পাচার বন্ধ করা সম্ভব নয়। এর জন্য সচেতন এবং সাধু নাগরিকদের মাধ্যমে সীমান্ত এলাকার মাদক ব্যবসায়ীদের সামাজিকভাবে বয়কট করতে হবে এবং তাদের আইনের আওতায় আনতে সহায়তা করতে হবে। স্থানীয় ব্যক্তিবর্গের সহায়তায় মাদক ব্যবসায়ীদেরকে চিহ্নিত করে প্রশাসনকে সহযোগিতা করার কোন বিকল্প নেই।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ
এক ক্লিকে বিভাগের খবর
%d bloggers like this:
%d bloggers like this: