মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর ২০২০, ০৫:৩২ অপরাহ্ন

জেল আর নীল রং মিশিয়ে তৈরি হচ্ছে ভেজাল হ্যান্ডরাব

ডেস্ক নিউজ: / ১২৮ বার
আপডেট মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর ২০২০, ০৫:৩২ অপরাহ্ন

করোনা পরিস্থিতিতে মাত্রাতিরিক্ত চাহিদার কারণে কার্যকর কোনো উপাদান ছাড়াই জীবাণুনাশক তরল হ্যান্ডরাব তৈরি ও বিক্রিতে তৎপর হয়ে উঠেছে এক শ্রেণির অসাধু চক্র। কোনো ধরনের মান নিয়ন্ত্রণ ছাড়াই নীল রং, লেবুর ফ্লেভার, স্পিরিট আর জেল মিশিয়ে বাসায় বসেই অনেকে এসব হ্যান্ডরাব বানিয়ে বিক্রি করছে। এ ধরনের হ্যান্ডরাব ব্যবহারে উপকারের বদলে উল্টো ভয়াবহ ক্ষতির আশঙ্কা রয়েছে।
বৃহস্পতিবার (২৫ জুন) রাজধানীর যাত্রাবাড়ির উত্তর রায়েরবাগ এলাকায় অভিযান চালিয়ে এমনই অস্বাস্থ্যকর হ্যান্ডরাব তৈরির একটি কারখানার সন্ধান পেয়েছেন র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‍্যাব) ভ্রাম্যমাণ আদালত।

এ সময় কারখানাটি থেকে লক্ষাধিক বোতল হ্যান্ডরাব জব্দ করা হয়। এর বাজারমূল্য প্রায় দেড় কোটি টাকা। এছাড়া গত এক সপ্তাহে এই কারখানা থেকে প্রায় ২ লাখ বোতল হ্যান্ডরাব বাজারে ছাড়া হয়েছে। যার বাজারমূল্য আনুমানিক আড়াই কোটি টাকা।

ভ্রাম্যমাণ এ আদালতের নেতৃত্ব দেওয়া র‍্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পলাশ বসু জানান, কাজি ম্যানুফ্যাকচার নামে প্রতিষ্ঠানটি কোনো ধরনের অনুমোদন না নিয়েই নকল হ্যান্ডরাব তৈরি করে বাজারজাত করছিল। এসব নকল হ্যান্ডরাব তৈরিতে ব্যবহার করা হচ্ছিল নীল রং, লেবুর ফ্লেভার, স্পিরিট আর জেল। কিন্তু হ্যান্ডরাবের যে মূল উপাদান ক্লোরোহ্যাক্সিডাইন গ্লোকোনেট, তার কোনো ব্যবহারই ছিল না।

অভিযানে কাজি ম্যানুফ্যাকচারের স্বত্ত্বাধিকারী মো. কাজি মুন্না, মো. শান্ত ও সাব্বির সরদারকে গ্রেফতার করে দুই বছর করে কারাদণ্ড দেওয়া হয়। এছাড়া অবৈধ এসব কাজে প্রত্যক্ষভাবে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করায় আব্দুল মান্নান ভূঁইয়া নামে একজনকে দুই লাখ টাকা জরিমানা অনাদায়ে তিন মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

পলাশ বসু বলেন, গত সপ্তাহেও এ কারখানা থেকে দুই লাখের বেশি বোতল হ্যান্ডরাব বাজারজাত করা হয়েছে। এরা মূলত পুরান ঢাকা থেকে বোতল সংগ্রহ করতো ও তাতে ভেজাল হ্যান্ডরাব ভরে মিটফোর্ট এলাকা থেকে সিল করিয়ে আনতো।

সূত্র -বাংলা নিউজ ২৪


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ
এক ক্লিকে বিভাগের খবর
%d bloggers like this:
%d bloggers like this: