বুধবার, ২৮ অক্টোবর ২০২০, ০৮:০৪ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
শিরোনাম :
তিন পার্বত্য জেলার ৭টি পৌরসভায় ব্যাপক উন্নয়ন প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে : পার্বত্যমন্ত্রী বাইশারীতে গ্রামীন সড়ক দিয়ে উন্নয়নের নামে ভারী পাথর বোঝাই ৩৫ টনের ট্রাক করোনায় মধুখালী উপজেলা চেয়ারম্যানের মৃত্যু কুতুবদিয়াবাসীকে কাঁদালো সোনিয়া! ওসি প্রদীপের সহযোগী কনস্টেবল রুবেল শর্মার আরো ৮ দিনের রিমান্ড আবেদন রাঙ্গামাটিতে নিজ ঘরে শিশুর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার ৪২ লাখ টাকার বিদেশি মুদ্রাসহ দুবাইগামী যাত্রী আটক উখিয়ার মরিচ্যায় সড়ক অবরোধ করে দুই চেয়ারম্যানের পাল্টাপাল্টি সমাবেশ কক্সবাজারের সকল থানা থাকবে দালাল মুক্ত : সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে এসপি হাসানুজ্জামান মেরিন ড্রাইভের পাশে শতাধিক দোকানের মালিক রোহিঙ্গারা : চালাচ্ছে ইয়াবা ব্যবসা

দুর্নীতি আমাকে গ্রাস করতে পারবে না-কউক চেয়ারম্যান

নিজস্ব প্রতিবেদক: / ১১৫ বার
আপডেট বুধবার, ২৮ অক্টোবর ২০২০, ০৮:০৪ অপরাহ্ন

কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান লে, কর্ণেল (অব.) ফোরকান আহামদ বলেছেন, দুর্নীতি আমাকে কখনো গ্রাস করতে পারবে না। অতীতেও পারেনি, ভবিষ্যতেও পারবে না। দুর্নীতির ব্যাপারে আমি খুব কঠোর। আমার প্রতিষ্ঠানকে দুর্নীতিমুক্ত রাখতে সব সময় তৎপর রয়েছি।

সোমবার (৫ অক্টোবর) কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ আয়োজিত বিশ্ব বসতি দিবসের সেমিনারে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আস্থাভাজন ছিলাম। তিনি আমাকে খুব স্নেহ করতেন। তাই বিএনপি-জামায়াত সরকারের আমলে আমার প্রমোশন হয়নি। কউক চেয়ারম্যান করে আমাকে সেই ভালোবাসার প্রতিদান দিয়েছেন নেত্রী। আমি নেত্রীর বিশ্বাসকে অটুট রাখতে অত্যন্ত নিষ্ঠা ও সততার সাথে রাতদিন কাজ করে যাচ্ছি। নিজেকে দুর্নীতিমুক্ত থেকে; কউককে দুর্নীতিমুক্ত রাখার আপ্রাণ চেষ্টা করে যাচ্ছি।

কউক চেয়ারম্যান আফসোস করে বলেন, শুরু থেকে কিছু মানুষকে আমাকে মেনে নেয়নি। কিন্তু কোনোদিন তাদের প্রতি আক্রোশ ছিলাম না। আমি আমার মতো করে কাজ করে এসেছি। আমার কাজ আমি করেছি। কাজ দিয়ে আমি আমার অবস্থান বুঝিয়ে দিয়েছি। ইতোমধ্যে কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ অনেক উন্নয়নমূলক কাজ করেছে- যা দৃশ্যমান।

প্রধান সড়ক নিজের নিয়ন্ত্রণে নেয়া ভুল ছিলো উল্লেখ করে কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান লে, কর্ণেল (অব.) ফোরকান আহামদ বলেন, কক্সবাজার শহরের প্রধান সড়ক সংস্কার ও প্রসস্তকরণের কাজে নেয়া আমার ভুল ছিলো। আবেগের বশে নিয়েছিলাম। এটা হাতে নিয়ে কম কষ্ট পায়নি। তবে শেষ পর্যন্ত সফল হয়েছি। গত ১ অক্টোবর প্রধানমন্ত্রী এই প্রকল্পের অনুমোদন দিয়েছেন। শিগগিরই কার্যাদেশ হবে এবং কাজ শুরু হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ
এক ক্লিকে বিভাগের খবর
%d bloggers like this:
%d bloggers like this: