বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০১:০৮ পূর্বাহ্ন

ঈদুল আজহা ১ আগস্ট

ডেস্ক নিউজ: / ৯৪ বার
আপডেট বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০১:০৮ পূর্বাহ্ন

বছর ঘুরে আমাদের মাঝে আবারও ফিরে এসেছে পবিত্র ঈদুল আজহা। বাংলাদেশে আগামী ১ আগস্ট পবিত্র ঈদুল আজহা পালিত হবে। ঈদুল আজহা মুসলমানদের অন্যতম বৃহত্তম ধর্মীয় উৎসব। বাংলাদেশে ঈদুল আজহাকে কোরবানির ঈদও বলা হয়।

মঙ্গলবার (২১ জুলাই) বাংলাদেশের আকাশে জিলহজ মাসের চাঁদ দেখা যায়নি, ফলে ১ আগস্ট (শনিবার) পালিত হবে পবিত্র ঈদুল আজহা। জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির বৈঠক সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

মঙ্গলবার বাদ মাগরিব বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের পূর্ব সাহানে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় সভাপতিত্ব করেন ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব ও ও জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সহ-সভাপতি মো. নূরুল ইসলাম।

সভায় ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক আনিস মাহমুদ, ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মু. আ. হামিদ জমাদ্দার, তথ্য মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম-সচিব এস এম মাহফুজুল হক, ঢাকা জেলার এডিসি (সাধারণ) মো. ইলিয়াস মেহেদী, ওয়াকফ উপ-প্রশাসক মো. আবদুল কুদ্দুছ, বাংলাদেশ টেলিভিশনের পরিচালক (প্রশাসন) মুহা. নেছার উদ্দিন জুয়েল, বাংলাদেশ মহাকাশ গবেষণা ও দূর অনুধাবন প্রতিষ্ঠানের পিএসও আবু মোহাম্মদ, বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ ড. মো. আবদুল মান্নান, সরকারি আলিয়া মাদরাসার অধ্যক্ষ মো. আলমগীর রহমান, বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের সিনিয়র পেশ ইমাম হাফেজ মাওলানা মুহাম্মদ মিজানুর রহমান কাসেমী, চকবাজার শাহী জামে মসজিদের খতিব মাওলানা শেখ নাঈম রেজওয়ান ও লালবাগ শাহী জামে মসজিদের খতিব মুফতি মুহাম্মদ নেয়ামতুল্লাহসহ দেশের বিশিষ্ট আলেমগণ উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠকে সারাদেশ থেকে জিলহজ মাসের চাঁদ দেখার কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি। সে হিসেবে ২৩ জুলাই বৃহস্পতিবার থেকে জিলহজ মাস শুরু হবে এবং ১ আগস্ট (শনিবার, ১০ জিলহজ) পবিত্র ঈদুল আজহা পালিত হবে। সভা থেকে বাংলাদেশ মহাকাশ গবেষণা ও দূর অনুধাবন প্রতিষ্ঠান (স্পারসো) এবং আবহাওয়া অফিসের সঙ্গেও যোগাযোগ হয়েছে। কোনো সূত্র থেকেই চাঁদ দেখার খবর মেলেনি।

মুসলমানরা হিজরি বর্ষের দ্বাদশ মাস জিলহজের ১০ তারিখে ঈদুল আজহা বা কোরবানির ঈদ উদযাপন করেন। আল্লাহতায়ালার আদেশে হজরত ইবরাহিম (আ.) নিজ পুত্র হজরত ইসমাইলকে (আ.) আল্লাহর জন্য কোরবানি করার ইচ্ছা ও ত্যাগের কারণে সারা বিশ্বের মুসলমানেরা আল্লাহর কাছে নিজেদের সোপর্দ করে দেওয়ার লক্ষ্যে পবিত্র হজের পরদিন ঈদুল আজহা উদযাপন ও পশু কোরবানি করে থাকেন। আল্লাহতায়ালা নবী হজরত ইবরাহিম (আ.)-এর আনুগত্যে সন্তুষ্ট হন এবং ছেলের পরিবর্তে তাকে পশু কোরবানি করার নির্দেশ দেন। হজরত ইবরাহিম (আ.)-এর সুন্নত অনুসরণে ঈদুল আজহার সময় মুসলমানরা পশু কোরবানি করেন।

জিলহজ মাসের ১০ থেকে ১২ তারিখের মধ্যে মহান আল্লাহর সন্তুষ্টি লাভের উদ্দেশ্যে শরয়ি তরিকায় নির্দিষ্ট সময়ে নির্দিষ্ট ব্যক্তির পশু জবাই করাকে কোরবানি বলা হয়। সকালে রক্তিম সূর্য ওপরে ওঠার সময়ে ‘কোরবানি’ করা হয় বলে ওই দিনটিকে ‘ইয়াওমুল আজহা’ বলা হয়ে থাকে।

এবার ঈদুল আজহা উপলক্ষে ৩১ জুলাই, ১ ও ২ আগস্ট সরকারি ছুটি থাকবে। এরমধ্যে ৩১ জুলাই ও ১ আগস্ট সাপ্তাহিক ছুটির দিন শুক্র ও শনিবার।

করোনা পরিস্থিতির কারণে ঈদুল ফিতরের সময় গণপরিবহন বন্ধ ছিল। তবে করোনা পরিস্থিতির তেমন উন্নতি না হলেও এখন স্বাস্থ্যবিধি মেনে গণপরিবহন চলছে। তাই নিয়ম মেনে বাস, ট্রেন ও লঞ্চে ঈদুল আজহায় বাড়ি ফেরা যাবে।

এবার ৩০ জুলাই পবিত্র হজ এবং ৩১ জুলাই সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যে পবিত্র ঈদুল আজহা উদযাপিত হবে।

সূত্র: বার্তা ২৪

 


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ
এক ক্লিকে বিভাগের খবর
%d bloggers like this:
%d bloggers like this: