বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৪:৩৭ পূর্বাহ্ন

কক্সবাজারে করোনাক্রান্তরা কেমন চিকিৎসা পাচ্ছেন- ডাটা নেই সিএস অফিসে!

ডেস্ক নিউজ:: / ১৫৪ বার
আপডেট বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৪:৩৭ পূর্বাহ্ন

দেশব্যাপী যখন শক্তি দেখিয়ে চলছে মরণব্যাধি করোনাভাইরাস, তখন কক্সবাজার জেলাতেও তার ব্যতিক্রম হচ্ছে না। গত ১ এপ্রিল থেকে কক্সবাজার জেলাতেই কোভিড-১৯ সংক্রমণে রোগী শনাক্ত শুরু হয়। কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ পিসিআর ল্যাব থেকেই এই কার্যক্রমের সূচনা হয়। চকরিয়া-মহেশখালী বলতে বলতে সমগ্র কক্সবাজার জেলাজুড়েই ছড়িয়ে পড়েছে এই করোনাভাইরাস। একটি, দুইটি করে আজ তা দাঁড়িয়েছে ৯৯০ জনে। আর এই সময়ে প্রাণঘাতি করোনা কেড়ে নিয়েছে জেলার ২০ জন মানুষের প্রাণ।

জেলার স্বাস্থ্য সেবার মাঠ পর্যায়ের সরকারী সর্বোচ্চ প্রতিষ্ঠান সিভিল সার্জন কার্যালয়ের হিসেব মতে, মৃত্যুর সংখ্যা ২০ জন হলেও প্রকৃত সংখ্যা তার দ্বিগুণ বলে ধারণা করছেন সচেতন মহল। এছাড়াও এই সময়ে করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে ঠিক কতোজন মৃত্যুবরণ করেছেন তার কোন হিসাবও নেই স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনার ওই দপ্তরে।

সিভিল সার্জন অফিস বলছে, গত ৭ জুন পর্যন্ত জেলার ৭১টি ইউনিয়নে করোনাক্রান্ত হয়ে ২০ জনের প্রাণহানি হয়েছে। আর আক্রান্ত হয়েছেন ৯৯০ জন। তাদের মধ্যে জেলার রামু-চকরিয়া ও উখিয়াসহ তিনটি কোভিড-১৯ ডেডিকেটেড আইসোলেশন হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন ১২৫ জন করোনায় আক্রান্ত রোগী। আর হোম আইসোলেশনে আছেন আরও ৫৭৯ জন।

এই কঠিন সময়ে তারা কিভাবে আছেন, তাদের কি ধরণের চিকিৎসা সেবা দেয়া হচ্ছে এই সংক্রান্ত কোন তথ্যই জানাতে পারেনি সিভিল সার্জন অফিস।

সিভিল সার্জন কার্যালয়ের পরিসংখ্যান কর্মকর্তা পঙ্গজ পাল জানান, কক্সবাজারে কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে ডেডিকেটেড আইসোলেশন হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়ে বাড়িতে ফিরেছেন মোট ২৭৪ জন। তাদের মধ্যে কক্সবাজার সদর উপজেলার ৪৪ জন, চকরিয়ায় ১২০ জন, পেকুয়াতে ৩৭ জন, দ্বীপ উপজেলা কুতুবদিয়াতে মাত্র ১ জন, মহেশখালীতে ২৯ জন, রামুতে ৬ জন. উখিয়ায় ২৯ জন এবং সীমান্ত উপজেলা টেকনাফে ৮ জন সুস্থ হয়ে বাড়িতে ফিরেছেন।

পঙ্গজ পাল জানান, করোনার এই সময়ে করোনাক্রান্ত রোগীদের সেবাতেই নিয়োজিত ফ্রন্টলাইনের প্রথম সারির যোদ্ধা ডাক্তারসহ ৩০ জন স্বাস্থ্যকর্মী করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। যদিও এই আক্রান্ত ৩০ জনই সরকারি চিকিৎসক। আর বেসরকারী পর্যায়ের কতোজন ডাক্তার ও স্বাস্থ্যকর্মী করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন তার কোন সংখ্যা দিতে পারেননি সিভিল সার্জন কার্যালয়ের এই কর্মকর্তা।

সুত্র: কক্সবাজার ভিশন:


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ
এক ক্লিকে বিভাগের খবর
%d bloggers like this:
%d bloggers like this: