বৃহস্পতিবার, ০১ অক্টোবর ২০২০, ১২:০৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
শিরোনাম :
একটার পর একটা ধর্ষণের ঘটনা ঘটছে, বিচার হচ্ছে না: নুর বাইশারীতে বিট পুলিশিং কার্যালয়ের শুভ উদ্বোধন ও মত বিনিময় সভা বর্তমান সরকারের আমলেই সব ক্ষেত্রে নারীর মর্যাদা বেড়েছে-অধ্যক্ষ হামিদুল হক চৌধুরী কমিউনিটি পুলিশ বাদ নয়, চালু হচ্ছে ইউনিয়ন পর্যায়ে ‘বিট পুলিশিং’ কার্যক্রম পালংখালীর ক্ষতিগ্রস্ত ১৬৯ পরিবারে কোস্ট ট্রাস্টের এককালীন অনুদান যানজটের শেষ নেই উখিয়ায় উখিয়ার নবাগত ইউএনও নিজামউদ্দিন আহমেদ এর যোগদান মিন্নিকে কারাগারে প্রেরণ রিফাত হত্যা: স্ত্রী মিন্নিসহ ৬ জনের মৃত্যুদণ্ড নারী ধর্ষন, আহরণ, খুন, নির্যাতন এবং বাল্য বিবাহ আমরা আর চাইনা-স্কাসের চেয়ারম্যান প্রেমা

শুক্রবার ২৬ রোহিঙ্গা করোনা টেস্টের পজেটিভ ৮

রিপোর্টার / ১৫৬ বার
আপডেট বৃহস্পতিবার, ০১ অক্টোবর ২০২০, ১২:০৬ পূর্বাহ্ন

শুক্রবার ২২ মে কক্সবাজার মেডিকেল কলেজে ২৬ জন রোহিঙ্গা শরনার্থীর স্যাম্পল টেস্টে ৮ জন রোহিঙ্গা শরনার্থীর রিপোর্ট ‘পজেটিভ’ পাওয়া গেছে।

বিষয়টি কক্সবাজার আরআরআরসি অফিসের স্বাস্থ্য সমন্বয়কারী ডা. আবু তোহা এম আর ভূঁইয়া কক্ষ মেডিকেল কলেজ ল্যাবের উদ্বৃতি দিয়ে গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন।

২২মে শুক্রবার সনাক্ত হওয়া ৮জন রোগী সহ এ পর্যন্ত মোট ২১জন রোহিঙ্গা শরনার্থী (Forcibly displaced myanmar Nations-বলপূবর্ক বাস্তুচ্যুত মিয়ানমারের নাগরিক) করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হলো।

শুক্রবার ২২মে করোনা ভাইরাসে সনাক্ত হওয়া রোহিঙ্গা শরনার্থীদের মধ্যে মহিলা ৫জন ও ৩জন পুরুষ। সনাক্ত হওয়া ৮জন রোহিঙ্গা শরনার্থীর ৭জন ৬নম্বর শরনার্থী ক্যাম্পের। তারা হলো-মোহাম্মদ রফিক (২৩), ইউসুফ (১৩), আফসানা (১৮), নুরজাহান, তৈয়বা বেগম, হুমাইরা (২০), মোহাম্মদ (৮) এবং ২৬ নম্বর ক্যাম্পের মোহাম্মদ আলম (১৭)।

২১মে পর্যন্ত ২৬০ জন রোহিঙ্গা শরনার্থীর স্যাম্পল টেস্ট করা হয়েছে বলে জানান, কক্সবাজার আরআরআরসি অফিসের স্বাস্থ্য সমন্বয়কারী ডা. আবু তোহা এম আর ভূঁইয়া।

তিনি আরো জানান, করোনা আক্রান্ত সকল রোগীকে ইতিমধ্যে রোহিঙ্গা শরনার্থী ক্যাম্প থেকে পৃথক করে ক্যাম্পের অভ্যন্তরে স্থাপিত আইসোলেশন হাসপাতালে এনে চিকিৎসা সেবা দেওয়া হচ্ছে। এছাড়া এসব করোনা রোগীর সাথে সম্পৃক্ত থাকা অন্যান্যদের খুঁজে কোয়ারান্টাইনে রাখা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, কক্সবাজার মেডিকেল কলেজের ল্যাবে করোনা ভাইরাসের স্যাম্পল টেস্টের রিপোর্ট গত ২১মে থেকে পৃথক ২টি ভাগে দেওয়া হচ্ছে। ৩৪টি ক্যাম্পে থাকা রোহিঙ্গা শরনার্থীদের (Forcibly displaced myanmar Nations-বলপূবর্ক বাস্তুচ্যুত মিয়ানমারের নাগরিক) করোনা ভাইরাসের স্যাম্পল টেস্টের রিপোর্ট প্রতিদিন প্রথম দফে দেওয়া হচ্ছে। কারণ তারা বাংলাদেশের নাগরিক নয়।

আর কক্সবাজারের বাসিন্দা সহ বাংলাদেশের নাগরিকদের করোনা ভাইরাসের স্যাম্পল টেস্টের রিপোর্ট দ্বিতীয় দফে দেওয়া হচ্ছে। করোনা ভাইরাস সংক্রামণ প্রতিরোধ কমিটির অনুষ্ঠিত এক সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় বলে নির্ভরযোগ্য সুত্র সিবিএন-কে জানিয়েছে।

একইভাবে এখন থেকে করোনার স্যাম্পল টেস্ট, সুস্থ রোগী, করোনায় মৃত্যু, চিকিৎসাধীন রোগী, মোট করোনা রোগীর সংখ্যা সবকিছু রোহিঙ্গা শরনার্থী ও কক্সবাজারের নাগরিকদের জন্য পৃথকভাবে করা হচ্ছে বলে সুত্রটি জানিয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ
এক ক্লিকে বিভাগের খবর
%d bloggers like this:
%d bloggers like this: